Home » ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি

৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের গণবিজ্ঞপ্তি

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (NTRCA)

স্মারক: বেশিনিক/ শিশি/ তৃতীয় শিক্ষক নিয়ােগচক্র/১০৫৮/২০১৯/৬৫৪
তারিখ : ৩০ মার্চ, ২০২১

৩য় গণবিজ্ঞপ্তি – ২০২১

সমগ্র দেশের বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (স্কুল, কলেজ, মাদরাসা, কারিগরি ও ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা) সমূহের প্রবেশ পর্যায়ে নিম্নেবর্ণিত শূন্য পদ পূরণের লক্ষ্যে শিক্ষক হতে আগ্রহী নিবন্ধনধারী প্রার্থীদের নিকট থেকে নিম্নলিখিত শর্তে অনলাইন আবেদন (e-Application) আহবান করা হচ্ছে :

১. শূন্য পদের বিবরণ: মোট পদ: ৫৪,৩০৪টি

স্কুল ও কলেজ
এমপিও: ২৬,৮৩৮টি
নন-এমপিও: ৪,২৬৩টি
মোট: ৩১,১০১টি

মাদরাসা, কারিগরি ও ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা
এমপিও: ১৯,১৫৪টি
নন-এমপিও: ১,৮৪২টি
মোট: ২০,৯৯৬টি

সংরক্ষিত
এমপিও: ২২০৭টি

২. মহামান্য সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগের সিভিল লিভ টু আপিল ৩৪৩/২০১৯ নং মামলায় প্রদত্ত রায় বাস্তবায়নের স্বার্থে ২২০৭ (দুই হাজার দুই শত সাত) টি পদ সংরক্ষিত রেখে অবশিষ্ট ৫২০৯৭ ( বায়ান্ন হাজার সাতানব্বই)টি শূন্য পদের বিষয় ও পদভিত্তিক তালিকা এনটিআরসিএ’র ওয়েবসাইট www.ntrca.gov.bd এবং টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেড এর ওয়েবসাইট http://ngi.teletalk.com.bd-এ ০১ এপ্রিল ২০২১ খ্রি: প্রকাশ করা হবে।

৩. আবেদনকারীকে আবশ্যিকভাবে এনটিআরসিএ কর্তৃক সংশ্লিষ্ট বিষয়ে নিবন্ধনধারী এবং সমন্বিত মেধা তালিকাভুক্ত হতে হবে। এছাড়া মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ এবং কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ থেকে জারিকৃত সর্বশেষ জনবল কাঠামাে অনুযায়ী কাম্য শিক্ষাগত যােগ্যতা সম্পন্ন হতে হবে।

৪. আবেদনকারীর বয়স ০১ জানুয়ারি ২০২০ খ্রিষ্টাব্দ তারিখে ৩৫ বছর বা তার কম হতে হবে। তবে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ইনডেক্সধারী প্রার্থী এবং মহামান্য সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগের ৩৯০০/২০১৯ নং মামলার রায় অনুযায়ী ১২.০৬.২০১৮ খ্রিষ্টাব্দ তারিখের পূর্বে যারা শিক্ষক নিবন্ধন সনদ লাভ করেছেন তাদের ক্ষেত্রে বয়সসীমা শিথিলযােগ্য।

৫. প্রত্যেক আবেদনের জন্য আবেদনকারীকে ১০০ টাকা হারে ফি জমা দিতে হবে। নির্ধারিত হারে ফি জমা না দিলে আবেদনটি বাতিল বলে গণ্য হবে।

৬. মহামান্য সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগের রায় অনুযায়ী সংরক্ষিত ২২০৭ টি পদের বিপরীতে শুধুমাত্র উক্ত মামলার প্রতিকার প্রার্থীদের কোন choice দেয়ার প্রয়ােজন নেই। তারা http://ngiresult.teletalk.com.bd লিংকে প্রবেশ করে চাহিত তথ্য প্রদান করবেন এবং প্রত্যেকে ১০০ টাকা হারে ফি জমা প্রদান করবেন।

৭. (ক) e-Application পূরণ ও ফি জমা প্রদান শুরুর তারিখ ও সময়: ০৪ এপ্রিল ২০২১ খ্রি: সকাল ১০.০০ ঘটিকা।
(খ) e- Application জমা প্রদানের শেষ তারিখ ও সময়: ৩০ এপ্রিল ২০২১ খ্রি: তারিখ সময় রাত ১২.০০ ঘটিকা পর্যন্ত। ৩০ এপ্রিল ২০২১ তারিখ রাত ১২.০০ হতে শুধু Application ID প্রাপ্ত প্রার্থীগণ উক্ত সময়ের পরবর্তী ৭২ ঘন্টার মধ্যে অর্থাৎ ০৩ মে ২০২১ খ্রি: তারিখ রাত ১২.০০ টা পর্যন্ত SMS এর মাধ্যমে ফি জমা দিতে পারবেন।
(গ) অনলাইনে আবেদন ও ফি জমা দেওয়া সংক্রান্ত নিয়ম টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেড এর http://ngi.teletalk.com.bd ওয়েবসাইট এবং এর www.ntrca.gov.bd ওয়েবসাইট-এ স্বতন্ত্রভাবে প্রদর্শন করা হয়েছে। এ বিষয়ের একটি নমুনা (ডেমাে) টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেড এর http://ngi.teletalk.com.bd ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

৮. e- Application ফরম পূরণের ক্ষেত্রে আবেদনকারীর নামের বানানসহ অন্যান্য তথ্যাদি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় প্রদত্ত তথ্যের অনুরূপ হতে হবে। নামের বানান অনুরূপ না হলে বা ভুল বানান ব্যবহার করলে কম্পিউটার Processing এ বিভ্রাট ঘটবে যার দায় সংশ্লিষ্ট আবেদনকারীকে বহন করতে হবে।

৯. প্রতিটি পদের জন্য প্রাপ্ত সকল বৈধ আবেদনকারী অনলাইনে সফলভাবে আবেদন পেশ করার পর এনটিআরসিএ’র পক্ষ থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি SMS পাবেন। এছাড়া আবেদনকারীকে স্ব উদ্যোগে দাখিলকৃত আবেদনের একটি প্রিন্ট কপি সংরক্ষণ করতে হবে।

১০. মহিলা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে সহকারী শিক্ষক (শারীরিক শিক্ষা) পদের জন্য শুধুমাত্র মহিলা প্রার্থীগণ আবেদন করতে পারবেন। মহিলা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পুরুষ প্রার্থীগণের আবেদন গ্রহণযােগ্য নয়।

১১. যে সকল পদের বিপরীতে ‘Female Quota’ প্রদর্শিত হবে, সে সকল পদে শুধুমাত্র মহিলা প্রার্থীগণ আবেদন করবেন। অবশিষ্ট সকল পদে পুরুষ-মহিলা উভয় প্রার্থী আবেদন করতে পারবেন।

১২. নিয়ােগ আবেদন (e-Application) ফরমটি পূরণের ক্ষেত্রে সতর্কতা অবলম্বনের পরামর্শ প্রদান করা হলাে। ফরম পূরণ শেষে একবার আবেদনপত্র Submit হয়ে গেলে তা কোন ভাবেই সংশােধনের সুযােগ থাকবে না।

১৩. এনটিআরসিএ কর্তৃক প্রাপ্ত বিষয় ভিত্তিক নিবন্ধন সনদের ভিত্তিতে সনদধারী e-Advertisement এ প্রদর্শিত তার সংশ্লিষ্ট বিষয়/বিষয়সমূহের বিপরীতে তালিকায় বর্ণিত সকল প্রতিষ্ঠানে আবেদন করতে পারবেন। তবে একাধিক প্রতিষ্ঠানের একাধিক পদে আবেদনের ক্ষেত্রে প্রার্থীকে পছন্দের ক্রম উল্লেখ করতে হবে। তার পছন্দের ক্রমানুসারে মেধাক্রম অনুসরণ করে মাত্র একটি পদের বিপরীতে তার নিয়ােগ সুপারিশ করা হবে।

১৪. ইত:পূর্বে এনটিআরসিএ’র পক্ষ হতে ১ম-৫ম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ সকল নিবন্ধন সনদধারীদের তথ্য http://ngi.teletalk.com.bd এর মাধ্যমে হালনাগাদ করার জন্য নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। যারা এ পর্যন্ত উক্ত তথ্য হালনাগাদ করেননি তাদেরকে e- Application করার পূর্বে আবশ্যিকভাবে সংশ্লিষ্ট তথ্যাদি অবিলম্বে হালনাগাদ করার জন্য অনুরােধ করা হল। অন্যথায় তাদের আবেদন প্রক্রিয়াকরণ (Process) করা সম্ভব হবে না।

১৫. শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে জারিকৃত সর্বশেষ জনবল কাঠামাে অনুযায়ী প্রার্থীকে আবশ্যিকভাবে কেবলমাত্র তার শিক্ষক নিবন্ধন সনদে উল্লেখিত বিষয় সংশ্লিষ্ট পদে আবেদন করতে হবে। আবেদনকারী মিথ্যা তথ্য প্রদানের মাধ্যমে নিয়ােগ সুপারিশ প্রাপ্ত হলে, উক্ত সুপারিশ বাতিলকরণ সহ তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা
হবে।

১৬. প্রাপ্ত আবেদনসমূহ সরকারি বিধি-বিধান অনুসরণ করে সমন্বিত জাতীয় মেধা তালিকা হতে মেধার ভিত্তিতে চূড়ান্ত ভাবে নিয়ােগ সুপারিশের জন্য বাছাই করে নিয়ােগের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের প্রধান বরাবর সুপারিশপত্র প্রেরণ করা হবে এবং নির্বাচিত প্রার্থীকে SMS এর মাধ্যমে অবহিত করা হবে। নিয়ােগ সুপারিশে বর্ণিত সময় সীমার মধ্যে যদি কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সুপারিশকৃত প্রার্থীকে নিয়ােগ পত্র প্রদানে ব্যর্থ হয় তবে মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগের আদেশ অনুযায়ী ঐ সকল প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটি/গভর্নিং বডি বাতিল করণের জন্য প্রয়ােজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

১৭. মামলা/আইনগত কোন জটিলতার কারণে অনলাইনে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি (e-Advertisement) এর কোন পদে নিয়ােগ প্রদান সম্ভব না হলে বর্ণিত কারণের জন্য এনটিআরসিএ দায়ী থাকবে না।

১৮. এমপিও নীতিমালা অনুযায়ী ইনডেক্সধারী শিক্ষকদের বয়সসীমা শিথিলযােগ্য বিধায় বর্তমানে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যে সকল শিক্ষক নিবন্ধন সনদধারী হিসেবে কর্মরত রয়েছেন, তারাও অনলাইনে নিয়ােগের জন্য আবেদন করতে পারবেন। তবে তাদের আবেদনসমূহ অন্যান্য প্রার্থীদের ন্যায় সমন্বিত মেধা তালিকার ভিত্তিতে বাছাইপূর্বক নিয়ােগ সুপারিশ করা হবে।

১৯. সহকারী শিক্ষক (ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা) পদে চাকুরি প্রত্যাশী আবেদনকারীকে অবশ্যই সে ধর্মের অনুসারী হতে হবে।

২০. প্রতিষ্ঠান প্রধান কর্তৃক দাখিলকৃত শূন্য পদসমূহের চাহিদা সংশ্লিষ্ট উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এবং জেলা শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে সংগৃহীত এবং সংশ্লিষ্ট জেলা শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে পুনঃযাচাইকৃত হওয়ায় ভুল চাহিদাজনিত কারণে নিয়ােগ সুপারিশে কোন জটিলতার জন্য এনটিআরসিএ কোনভাবে দায়ী থাকবে না।

২১. এই e-Advertisement এর প্রদত্ত যেকোন শর্ত এবং প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি NTRCA যে কোন সময়ে সংযােজন, বিয়ােজন ও পরিবর্তন এবং স্থগিতের অধিকার সংরক্ষণ করে।

এ বি এম শওকত ইকবাল শাহীন
সদস্য (যুগ্মসচিব)
শিক্ষাতত্ত্ব ও শিক্ষামান
এনটিআরসিএ, ঢাকা
ফোন নং- ০২-৪১০৩১০৪৭